গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান

Share
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on skype
Share on email
গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা অতি বিরক্তিকর একটি সমস্যা। এই সমস্যায় ভোগেননি এমন কোনো মানুষ নেই। তাই গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান সম্পর্কে আমাদেরকে অবশ্যই  জানতে হবে। প্রায় প্রত্যেক মানুষই কোনো না কোনো সময় এই  সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন।  এই গ্যাস্ট্রিক সমস্যার রয়েছে বেশকিছু ঘরোয়া সমাধান যেগুলো জানলে আমরা অবশ্যই এই সমস্যার থেকে মুক্তি পেতে পারবো।

যা যা করলে গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান হবে

  1. কাঁচা রসুন
    আমার জানি কাঁচা রসুনের রয়েছে অনেক উপকারী গুণ। কাঁচা রসুন  গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান করতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।   প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক কোয়া  রসুন  চিবিয়ে খেলে পাকস্থলীর হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং গ্যাসের সমস্যা অনেক কমিয়ে আনে। তাই গ্যাসের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আমাদেরকে  প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক কোয়া  কাঁচা রসুন খেতে হবে। এবং এভাবে কিছুদিন খেলে আপনারা নিজেরাই উপকারিতা বুঝতে পারবেন

  2. হলুদ
    হলুদ অত্যন্ত উপকারী একটি উপাদান। হলুদের রয়েছে বেশ কিছু প্রাকৃতিক গুণ। হলুদ যেমন  ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে তেমনি গ্যাসের সমস্যা সমাধানেও হলুদের ভূমিকা অপরিসীম। প্রতিদিন রাতে খাওয়ার একঘন্টা পরে কাঁচা হলুদ আলুর মত কুচি কুচি করে কেটে সসপেন কিংবা একটি করায় করে ভালোভাবে  পানি দিয়ে ফুটাতে হবে এবং পানিটা যখন লাল হয়ে যাবে তখন সেটা  চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে। এবং এই ফুটন্ত পানি ঠান্ডা হওয়ার পর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করে ঘুমাতে হবে। তাহলে সকালে উঠে দেখবেন আর পেটে গ্যাস অনুভব হচ্ছে না।  এভাবে একটানা কিছুদিন এই টিপসটি ফলো করলে দেখবেন আপনাদের গ্যাসের সমস্যা আগের থেকে অনেক কমে গেছে।

  3. দারুচিনি
    দারুচিনি হজমশক্তি বাড়ানোর জন্য অত্যন্ত  ভালো একটি মশলা। এটি প্রাকৃতিক এনটাসিড হিসাবে কাজ করে থাকে এবং পেটের গ্যাস দূর করতে সাহায্য করে। এক কাপ পানিতে আধা চা চামচ দারুদিনি গুঁড়া মেশান এবং কয়েক মিনিট সেটি সিদ্ধ করুন। এটি দিনে ২/৩ বার পান করতে পারেন। আপনি চাইলে স্যুপ বা সালাদের সাথেও দারুচিনির গুঁড়া মিশিয়ে খেতে পারেন। এতে আপনার গ্যাসের সমস্যা আগের থেকে অনেক কমে যাবে।

  4. প্রচুর পরিমাণে পানি পান
    পানির অপর নাম জীবন। প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। এটি শুধু আপনার গ্যাস্টিকের সমস্যা কমাবে না আরো অনেক রোগের হাত থেকে মুক্তি দেবে। প্রতিদিন কমপক্ষে ছয় থেকে আট গ্লাস পানি পান করার চেষ্টা করুন। কিন্তু একবারে বেশি পানি খাবেন না।  ঘন ঘন পানি পান করার অভ্যাস করুন।  এতে আপনার গ্যাস্টিকের সমস্যা নিরাময় হয়ে যাবে।

  5. আদা
    আদা গ্যাসের সমস্যা সমাধানে অত্যন্ত কার্যকরী একটি উপাদান। এটি বদ হজমও দূর করে থাকে। প্রতিদিন খাবার পর এক টুকরা আদা চিবিয়ে খেলে পেটে আর গ্যাসের সম্যসা দেখা দিবে না। এছাড়া আদা চা, আদা পানি পান করলে ও গ্যাসের সমস্যা দূর হয়ে থাকে।

  6. লবঙ্গ
    লবঙ্গ অম্লতা উপশম এবং গ্যাস্টিকের সমস্যা দূর করতে অত্যন্ত সহয়তা করে। কয়েকটি লবঙ্গ এবং দারুচিনি গুঁড়া করে মিশিয়ে নিন। এটি আপনি আপনার প্রতিদিনের খাবারের সাথে খেতে পারেন। লবঙ্গ গ্যাসের সমস্যা দূর করার সাথে সাথে আপনার নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধও দূর করে থাকে।

  7. পেয়ারার পাতা
    পেয়ারার পাতা ২ কাপ পানিতে  দিয়ে ফুটিয়ে নিন। পানি ১ কাপ পরিমাণে হলে ছেঁকে পান করুন। এতেও বেশ ভালো গ্যাস্টিকের সমস্যার উপকার হবে।

  8. মধু
    কুরআনে মধুকে সকল রোগের মহা ঔষধ বলা হয়েছে।  মধুতে রয়েছে  বেশকিছু  প্রাকৃতিক গুণ। এটি গ্যাস ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ১ চা–চামচ খাঁটি মধু ভোরবেলা পান করলে কোষ্ঠবদ্ধতা এবং অম্লত্ব দূর হয়। মধুতে রয়েছে ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স। যেটা পেটের নানাবিধ সমস্যা দূরীকরণে অত্যন্ত উপকারী।

বিঃদ্রঃ  উপরিউক্ত সকল বিষয়গুলোর মধ্যে যেকোনো একটি  ফলো করলে আপনারা অবশ্যই গ্যাসের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। আরো ভালো ভালো হেলথ টিপস পেতে আমাদের সাথে থাকুন।

Advertisement

Share
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on skype
Share on email

Readers comments

About the author

Author's posts

Sponsored

Related posts

Official Facebook page

Sponsored